অস্তিত্ব হারিয়ে ফেলছে শাখা বরাক নদী

Print

 

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
নদীমাতৃক দেশ বাংলাদেশ। শাখা-প্রশাখা’সহ প্রায় ৮শ’ নদ-নদী বিপুল জলরাশি নিয়ে ২৪ হাজার ১শ’ ৪০ কিলোমিটার জায়গা দখল করে দেশের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হতো। কিন্তু কালের বির্তন আর নদী শাসনের ফলে কমে গেছে নদ-নদীর পরিমাণ। তেমনি একটি নদী ‘শাখা বরাক’। হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে সুরমা ও কুশিয়ারা নদীতে গিয়ে মিলিত হয়েছে ‘শাখা বরাক নদী’। তাৎকালিন একসময় এ নদীর উপরেই নির্ভর ছিল নবীগঞ্জ উপজেলার অর্থনৈতিক অবস্থা। জেলেদের মাছ আহরণ’সহ নানান ব্যবসা বাণিজ্যের জন্য সারা দেশের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম ছিল ওই নদী। কিন্তু এখন আর সেই অবস্থা নেই। দখল আর দূষণের কবলে পড়ে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে এ নদীটি। কিছু অংশে নদীর গতিপথ থাকলেও অধিকাংশ অংশে নদীকে খুঁজে পাওয়াই দায়। রাস্তাঘাট আর বড় বড় ইমারত তৈরি করা হয়েছে নদীর উপরে। আর যে অংশে নদীর কিছুটা অস্তিত্ব রয়েছে সেখানেও ফেলা হচ্ছে ময়লা আবর্জনা। একসময় এই নদী দিয়ে ল , স্টিমার’সহ বড় বড় জাহাজ চলাচল করতো। এখন আর তেমন কিছু চলাচল করতে দেখা যায় না। অকেজো হয়ে পড়েছে ঐতিহাবাহী এ নদীটি। যেনো দেখার কেউ-ই নেই! দ্রুত এ নদীটির দখলমুক্ত ও খনন করার প্রক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। এতে এলাকার পরিবেশ সুন্দর’সহ কৃষকদের জমি পানি সংকট থেকে মুক্তি পাবে। নয়তো এ নদীর কোনো অস্তিত্ব থাকবে না।
এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) তৌহিদ-বিন-হাসান বলেন, গত মাসে এক সভায় শাখা বরাক নদীকে দখলমুক্ত করার কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের কারনে তা পিছানো হয়েছে। তবে দ্রুত অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে বলেও জানান তিনি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 235 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ