আগামী মার্কিন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনী নীতি কঠোর করছে ফেসবুক

Print

২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচনে ফেসবুকে রুশ গোয়েন্দাদের প্রপাগান্ডা এবং ব্যবহারকারীদের তথ্য বিক্রির কেলেঙ্কারির কারণে বিগত কয়েক বছর ধরেই চাপের মুখে রয়েছে ফেসবুক। এর মাঝেই আসছে ২০২০ সালের মার্কিন জাতীয় নির্বাচন। এই নির্বাচনে আর কোন কেলেংকারিতে জড়িয়ে পড়তে চায় না ফেসবুক। কো¤পানিটির সাম্প্রতিক সিদ্ধান্ত অন্তত সেদিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। গত বুধবার এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানায়, ২০২০ সালের নির্বাচনকে সামনে রেখে তারা যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য নীতিমালায় কড়াকড়ি আরোপ করবে। খবর : রয়টার্স।

২০২০ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন। ওই নির্বাচনে মার্কিন জনমতকে প্রভাবিত করতে বিদেশী গোয়েন্দারা ফেসবুক ব্যবহার করতে পারে। এই কারণে বৈধ রাজনৈতিক প্রচারণা চালাতে আগ্রহী বিজ্ঞাপনদাতাদের যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত ‘স্থায়ী এবং নিশ্চিত’ রাজনৈতিক সংগঠনের অংশ হতে হবে। ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেয়ার আবেদনের সঙ্গে সরকারের কাছ থেকে নেয়া বৈধ নিবন্ধনপত্র এবং অন্যান্য কাগজপত্রও জমা দিতে হবে। এছাড়াও, বিজ্ঞাপনদাতা দল বা সংস্থার নাম, যোগাযোগের ঠিকানা ইত্যাদি সুপষ্টভাবে উলে¬খ করতে হবে প্রতিটি সামাজিক এবং রাজনৈতিক ইস্যুর বিজ্ঞাপনী পোস্টে। এসব শর্তপূরণে সময় দেয়া হবে চলতি বছরের মধ্য অক্টোবর পর্যন্ত। ব্যর্থ বিজ্ঞাপনদাতাদের প্রচারণা আর নেবে না ফেসবুক।

রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে এই প্রথম কঠোর হচ্ছে ফেসবুক। এর আগে অবশ্য তারা মার্কিন রাজনীতিবিদ এবং গণমাধ্যমের সমালোচনার মুখে গত বছরের শেষ থেকেই নিজেদের বিজ্ঞাপনী নীতিতে স্বচ্ছতা আনার চেষ্টা শুরু করে। ২০১৮ সালের মে থেকে ফেসবুক ইঙ্ক রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনে ‘অমুকের অর্থের বিনিময়ে প্রচারিত’ ট্যাগ লাগানোর শর্ত বেঁধে দেয়। কিন্তু, এরপরেও অনেক বেনামি এবং সন্দেহজনক বিজ্ঞাপন ফেসবুক প্রচার করে, যাদের প্রকৃত বিজ্ঞাপনদাতাদের অস্তিত্ব সম্পর্কে কোম্পানিটি নিশ্চিত নয়। তাই আগামী নির্বাচন পর্যন্ত আর এই ঝুঁকি টানতে চাইছেনা সামাজিক গণমাধ্যমটি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 76 বার)


Print