জেনে নিন কীভাবে সঙ্গীর বিষন্নতা দূর করবেন?

Print

বিষন্নতা একটি মানসিক রোগ। মানসিক চাপ, পারিবারিক সমস্যা অথবা ব্যক্তিগত কারণে হয়তো আপনার সঙ্গী বিষন্ন। আর এর ফলে দৈহিক ও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে সে। বিষন্নতা অনেক সময় সম্পর্কের টানাপোড়োন সৃষ্টি করতে পারে। যদি আপনি মনে করেন, আপনার জীবনসঙ্গী বিষণ্নতা অনুভব করছে, তাহলে আপনার প্রথম পদক্ষেপ হবে কেনও এই বিষন্নতা তা খুঁজে বের করা। এর পর চেষ্টা করুন সেই বিষণ্নতা দূর করার। তাহলে জেনে নিন কীভাবে সঙ্গীর বিষন্নতা দূর করবেন-

সঙ্গ দেওয়া

হতাশা, বিরক্তি, রাগ, সঙ্গীর সঙ্গে বিচ্ছিন্নতা-এ রকম নানা কারণে হতে পারে বিষন্নতা। এই সময়টাতে জীবনসঙ্গীর মানসিক সহায়তা খুবই প্রয়োজন। কারণ সঙ্গী বিষন্নতায় ভুগলে দাম্পত্য সম্পর্কও বিষন্নতায় ভোগে। তাই এ ক্ষেত্রে আপনার সঙ্গ জীবনসঙ্গীর বিষন্নতা দূর করবে।

কলহের বিষয়কে সহজ করে নেওয়ার পরামর্শ

বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দাম্পত্য জীবনে কলহের কারণে বিষন্নতা দেখা দেয়। এ ক্ষেত্রে সঙ্গীকে অনুভব করাতে হবে, সংসারে টুকিটাকি ঝামেলা সবারই হয়ে থাকে। এ বিষয়কে যতটা সম্ভব সহজ করে নেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। এ ক্ষেত্রে আপনাকে ধৈর্যসহকারে সঙ্গীকে বোঝাতে হবে। আপনার কথায় বন্ধুত্ব ও আশ্রয়ের ইঙ্গিত থাকতে হবে।

জীবনের প্রিয় মুহূর্তগুলোর মনে করানো

সঙ্গীকে বারবার আপনাদের জীবনের প্রিয় মুহূর্তগুলোর কথা মনে করিয়ে দিন। এর ফলে সে জীবনের ভালো সময়গুলো অনুভব করতে পারবে এবং আবারও ভালো কিছু মুহূর্তের আকাঙ্ক্ষা তার মনে জাগবে। এর ফলে এটি তার বিষণ্ণতাকে দূর করতে সাহায্য করবে।

মানসিকভাবে সাহায্য করা

অনেক সময় প্রিয়জনের সঙ্গ মানুষকে সব সমস্যা মোকাবিলায় সাহস জোগায়।বিষণ্নতার কারণে যদি সঙ্গীকে কোনও চিকিৎসকের কাছে যেতে হয়, তাহলে আপনি তার সঙ্গে যাবেন। সে যেন অনুভব করে, এ বিষয়ে আপনি তাকে মানসিকভাবে পুরোপুরি সাহায্য করছেন।

সঙ্গীকে প্রফুল্ল করে তোলা

বিবাহবিচ্ছেদের একটা বড় কারণ হলো বিষণ্ণতা। অর এ ঘটনা যেন না ঘটে. সে দায়িত্ব আপনাকেই নিতে হবে। আপনার অস্তিত্ব এবং সান্ত্বনার দু-একটি কথাই আপনার সঙ্গীকে প্রফুল্ল করে তুলবে। যে পরিস্থিতি তাকে বিষণ্ণ করে তুলছে, তা সমাধানের চেষ্টা করুন।

দেখবেন, এ উপায়গুলো অনুসরণ করলে ধীরে ধীরে আপনার সঙ্গীও এই বিষণ্ণতা থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করবে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 200 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ