আদালত অঙ্গনে আলোচনায় ছিল খালেদা জিয়ার জামিন

Print

দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট থেকে জামিন নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন কি না- আদালত অঙ্গনে বছরজুড়ে এ আলোচনা ছিল। ২০১৯ সালজুড়েই আইনজীবী, বিএনপি নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের মুখে মুখে ছিল খালেদা জিয়া হাইকোর্ট এবং সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ থেকে জামিন পাচ্ছেন কি না? তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ এবং একজন বয়স্ক মহিলা, দীর্ঘ দিন কারাগারে থেকে আরও অসুস্থ হয়ে যাচ্ছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য তার জামিন প্রয়োজন, এই বিবেচনায় তাকে জামিন দেয়ার জন্য আদালতে আবেদন জানান আইনজীবীরা। তবে বছরের শেষে এসে গত ১২ ডিসেম্বর আপিল বিভাগ মেডিক্যাল রিপোর্ট কল করার পর শুনানি নিয়ে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় তার জামিন আবেদন খারিজ করে দেন। এর আগে হাইকোর্টও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার নথিপত্র তলব করে উভয় পক্ষে শুনানি শেষে গত ৩১ জুলাই জামিন আবেদন সরাসরি খারিজ করে দেন।

এ বিষয়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া খুবই অসুস্থ। তিনি একজন বয়স্ক মহিলা। তার উন্নত চিকিৎসা দরকার। তার জামিনের জন্য বছরজুড়ে উচ্চ আদালতে আমরা আইনি লড়াই চালিয়েছি। কিন্তু সাত বছরের সাজায় তার জামিন নামঞ্জুর করা হলো, এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। হাইকোর্ট সাত বছরের সাজার এই মামলায় জামিন নামঞ্জুর করায় আমরা লজ্জাবোধ করছি। এর মধ্যে তিনি দেড় বছর সাজা খেটেছেন। এ অবস্থাতেও যে তার জামিন আবেদন সুপ্রিম কোর্ট নাকচ করবেন, তা নজিরবিহীন। শুধু বাংলাদেশ নয়, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশেও এ ধরনের জামিন আবেদন নাকচ করে দেয়ার নজির নেই।

ওইদিন শুনানিতে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, আমরা মানবিক কারণে খালেদা জিয়ার জামিন চাইছি। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে। রিপোর্ট আছে, তিনি হাত ও পা নাড়াতে পারছেন না। তার অবস্থা পঙ্গুত্বের দিকে যাচ্ছে। খালেদা জিয়া সুস্থ মানুষ ছিলেন। কিন্তু আমরা দেখলাম, তার অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছে। এই ছয় মাস চিকিৎসার পরও তার এই অবস্থা। আর ছয় মাস পর হয়তো তিনি লাশ হয়ে বের হবেন। আমরা সর্বোচ্চ এই আদালতের পর আর কোথাও যেতে পারব না। খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা দরকার। এ জন্য মানবিক দিক বিবেচনা করে তার জামিন আবেদন করেছি। আমাদের বলার আর জায়গা নেই।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 77 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ