এখনকার জেনারেশনের লোকজনকে দেখলে আমার খুব আফসোস হয়

Print

১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী এদেশের অনেক বুদ্ধিজীবীকে হত্যা করে। প্রতি বছর এ দিনটি এলেই বাঙালি স্মরণ করে সেই সব অমর আলোকবর্তিকাকে। দিবসটি নিয়ে নিজের ভাবনার কথা জানালেন শবনম ফারিয়া।

এখনকার জেনারেশনের লোকজনকে দেখলে আমার খুব আফসোস হয়। মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে যতটুকু জানা আমার বাবার কাছ থেকে জেনেছি। আমার মনে হয়, এখন আমাদের দেশ প্রেম দেখানোর একমাত্র জায়গা সোশ্যাল মিডিয়া। একটা স্ট্যাটাস দিয়েই আমরা হিরো হয়ে যাই বা চেষ্টা করি। কিন্তু অ্যাক্টিভিটি দেখাতে পারি না। আমার মনে হয়, স্যাক্রিফাইস বলতে আসলে কি- সেটা বোধ হয় আমাদের পরের জেনারেশনরা খুব কম জানে। সেটা তাদের বোঝাতে পারলে ভালো হতো। উদ্‌যাপন করার চেয়ে একাত্তরের শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্যাক্রিফাইস সম্পর্কে জানানো বেশি প্রয়োজন। কতটুকু স্যাক্রিফাইস করেছে তারা, সেটা সম্পর্কে সম্যক ধারণা দেওয়া দরকার। বুদ্ধিজীবী হত্যার ফলে আমাদের যে বিশাল ক্ষতি হয়েছে সেটা বলার মতো নয়। জহির রায়হানরা যদি বেঁচে থাকতেন তাহলে সিনেমার অবস্থা আজকের মতো শোচনীয় হতো না। আরও ভালো হতো। আরেকটু ডিফরেন্ট হতে পারত। এটা তো বিশাল ক্ষতি করে গেছে আমাদের। এমনকি দেশের প্রত্যেকটা সেক্টরে যারা ভালো ভালো ব্যক্তি ছিলেন তারা দেশটাকে ডিফরেন্টভাবে উন্নত করতে পারত। পাকিস্তানিরা তো আমাদের গোড়াটাই কেটে দিয়ে গেছে। উনারা থাকলে হয়তো আমাদের উন্নতি আরও দ্রুত হয়ে যেত, উন্নতি করতে সময়টা কম লাগত। কিছু তো আমাদের মেধাবী লোক ছিল। পাকিস্তানিরা একাত্তরে আমাদের মেধা শূন্য করে দিয়ে গেছে। তারপরও তো আমরা মাথা তুলে দাঁড়িয়েছি। যারা আমাদের এ অবস্থায় রেখে গেছে তাদের থেকে তো আমরা ভালো আছি। এটাই আমাদের বড় প্রাপ্তি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 60 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ