জায়গা নেই নালিশের

Print

ভূমি বিষয়ক অপরাধের নালিশ জানানোর কোনো জায়গা নেই। তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিকারেরও নেই কোনো ব্যবস্থা। মালিকানা প্রমাণে ছহি কাগজপত্রের যেন কোনো মূল্য নেই। প্রাধান্য পাচ্ছে ‘জোর যার মুলুক তার’ তত্ত¡। সঠিক কাগজপত্র থাকা সত্তে¡ও একের জমি চলে যাচ্ছে অন্যের দখলে। দিনকে দিন বাড়ছে এধরণের ভূমি-অপরাধ। ঘটছে খুন-খারাবি। বিচারাঙ্গনে বাড়ছে মামলার স্তূপ। ক্রম:বর্ধিষ্ণু মামলা উদ্বিগ্ন করে তুলেছে সরকারকেও।

রাজধানীর মেরাদিয়া মৌজায় দু’টি দাগে ৪২ শতাংশ ভূমির মালিক শেখ রমিজউদ্দিন (৭০)। চাচা নিঃসন্তান অবস্থায় মারা যান। এ কারণে নিজ পিতা এবং চাচার সম্পত্তিরও ষোলো আনা মালিক তিনি। আর কোনো ভাই-বোন নেই। বাবা-মা মৃত্যুর পর সম্পত্তি গ্রাসের জন্য রমিজউদ্দিনকে তাড়িয়ে দেয় অন্য স্বজনরা। পুরনো ঢাকায় পালিয়ে বাঁচেন শিশু রমিজ। এখন তিনি মাংসের দোকানের কর্মচারী। কষ্টেশিষ্টে দিন কাটে তার। মূল্যবান পৈত্রিক সম্পত্তি মালিকানার প্রামাণ্য কাগজপত্র বগলদাবা করে ঘুরছেন এর-ওর কাছে। মেরাদিয়ার পৈত্রিক ভিটায় ভবন তুলেছে জবর দখলকারিরা। প্রাণভয়ে জমির কাছেও যেতে পারছেন না। প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে মামলায় লড়বেন- এমন সাহস ও সাধ্য কোনোটাই নেই। অপেক্ষায় আছেন-দখল ছাড়া যদি কাগজপত্রগুলোই বিক্রি করে দিতে পারতেন!

শেখ রমিজউদ্দিন একটি সত্যি ঘটনার দৃষ্টান্ত মাত্র। এ ধরণের ঘটনা সারাদেশে লাখ লাখ। কাগজ আছে-দখল নেই। দখল আছে তো কাগজ নেই। এ নিয়ে সৃষ্টি হয় বিরোধ। হচ্ছে খুনোখুনি। যুগ যুগ ধরে চলছে মামলাও। শত শত বছর আগে প্রণীত ব্রিটিশ আইনের আওতায় চলছে এসব মামলা। মামলার ‘শুরু’ আছে তো ‘শেষ’ নেই।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 91 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ