রক্ষক আমি, ভক্ষক হতে চাই না

Print

শ ম রেজাউল করিম। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক এবং গণপূর্ত ও গৃহায়ণমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন। আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে প্রথমবারের মত আইন সম্পাদকের দায়িত্ব পান তিনি। তাঁর পিতা মো. আব্দুল খালেক শেখ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং বরেণ্য রাজনীতিবিদ ছিলেন। ১/১১ পরবর্তী এবং পূর্ববর্তী সময় থেকেই শ ম রেজাউল করিম জননেত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার অন্যতম আইনজীবী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ছাত্রাবস্থায় তিনি রাজনীতির সাথে একনিষ্ঠভাবে যুক্ত ছিলেন।

১/১১ এর সময় তৎকালীন বিরোধী দলের নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে গ্রেফতারের পরে তাকে আইনি সহায়তা প্রদানের জন্য সর্বপ্রথম তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাছে লিখিত আবেদন করেন শ ম রেজাউল করিম। ছাত্রজীবনে তিনি দৌলতপুর কলেজের ভি.পি ছিলেন। পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটি (১৯৯০ সন থেকে অদ্যাবধি), সদস্য, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং সাধারণ সম্পাদক, ঢাকাস্থ পিরোজপুর জেলা আওয়ামী পরিষদের দায়িত্ব পালন করছেন।

সম্প্রতি দেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজপোর্টাল ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি-এর মুখোমুখি হন এই রাজনীতিক। তার সঙ্গে দীর্ঘ আলাপচারিতায় উঠে আসে সমসাময়িক রাজনীতির নানা তথ্য-উপাত্ত। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ব্রেকিংনিউজের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট রাহাত হুসাইন।

ব্রেকিংনিউজ : আওয়ামী লীগের আইন সম্পাদক ও আইনবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে কি কি কাজ করতে পেরেছেন?

শ ম রেজাউল করিম : দীর্ঘ পথপরিক্রমা এবং ধারাবাহিক আন্দোলন-সংগ্রামের ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এখন শুধু রাজনৈতিক দল নয়, একটি ইন্সটিটিউশন। আওয়ামী লীগ একটি প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। সেই প্রতিষ্ঠানের মুখ্য স্রষ্টা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে নির্মমভাবে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। তখনই আইনের শাসন বাংলাদেশ থেকে একেবারেই মুখ থুবড়ে পড়ে। ১৯৮১ সালের ১৭ মে বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর দেশকে আইনের শাসনের পথে নিয়ে আসার জন্য কাজ শুরু করেন। আমি আইন সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহণ করে চেষ্টা করেছি দল, সরকার এবং রাষ্ট্র যাতে আইনানুগ প্রক্রিয়ায় সবকিছু সম্পন্ন করে সেটা নিশ্চিত করার। সেক্ষেত্রে আইন সম্পাদক হিসেবে আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব এবং আইন উপ-কমিটির সদস্য সচিব হিসেবেও দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করেছি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 63 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ