শাজাহান খানকে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিল ইলিয়াস কাঞ্চনের ‘নিসচা’

Print

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে থাকা চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনকে জ্ঞানপাপী আখ্যায়িত করে তার মুখোশ উন্মোচনের হুমকি দিয়েছেন সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান।

রোববার নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের পূর্বাচলে ঢাকা জেলা বাস-মিনিবাস সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে ড্রাইভার্স ট্রেনিং সেন্টারে (ডিটিসি) এক অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন শাজাহান খান।

রোববারই সাবেক এ নৌমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে ইলিয়াস কাঞ্চনের প্রতিষ্ঠান ‘নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)’।

নিসচার যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদ স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা মনে করি, ইলিয়াস কাঞ্চন সম্পর্কে শাজাহান খান জঘন্যতম মিথ্যাচার করেছেন। তার মিথ্যাচারে আমরা বিস্মিত, হতবাক এবং এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিচ্ছি শাজাহান খানকে। এই সময়ের মধ্যে তার বক্তব্যের তথ্য জাতির সামনে তুলে ধরতে হবে। নতুবা আমরা আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হব।’

ইলিয়াস কাঞ্চনকে উদ্দেশ করে ডিটিসির ওই অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান বলেন, আপনি যে বিদেশিদের কাছ থেকে নিরাপদ সড়ক চাই এনজিওর নামে কোটি কোটি টাকা নিয়ে আসছেন। আপনি কয়টি প্রতিষ্ঠান করেছেন, কয়েকটি স্কুল করেছেন, কয়জন মানুষকে ট্রেনিং দিয়েছেন- আমি তার তথ্য বের করছি।

তিনি আরও বলেন, ইলিয়াস কাঞ্চন কোথা থেকে কত টাকা পান, কী উদ্দেশ্যে পান, সেখান থেকে কত টাকা নিজে নেন, পুত্রের নামে নেন, পুত্রবধূর নামে লাখ লাখ টাকা নেন; সেই হিসাব আমি জনসমক্ষে তুলে ধরব।

তার এসব বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে নিসচার বিবৃতিতে পাল্টা প্রশ্ন ছোড়া হয়েছে শাজাহান খানের উদ্দেশ্যে।

সেখানে বলা হয়েছে, শাজাহান খান কী করে সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন? সেই প্রশ্ন আমরা জাতির কাছে রাখছি।

নিসচার আরও প্রশ্ন– পরিবহন সেক্টরে বছরে বিভিন্ন খাতের নামে যে চাঁদা আদায় করা হয়, তার কত অংশ শ্রমিকদের কল্যাণে ব্যয় করা হয়েছে? কয়টা প্রাতিষ্ঠানিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হয়েছে শ্রমিকদের দক্ষ করার জন্য? শ্রমিকদের স্বাস্থ্যসেবা দিতে কয়টি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে? শ্রমিকদের সন্তানদের লেখাপড়া শেখানোর জন্য কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়েছেন কি শাজাহান খান?

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 107 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ