২৩ হাজার অগ্নিকাণ্ডে প্রাণ হারিয়েছেন ১৮৬ জন

Print

বনানীর এফআর টাওয়ার, পুরান ঢাকার চুড়িহাট্টা, কেরানীগঞ্জ ও গাজীপুরের কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা বছরজুড়ে কাঁদিয়েছে বাংলাদেশকে। দেশের ইতিহাসে আলোচিত কয়েকটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে চলতি বছরে। সারা দেশে বছরজুড়ে এ রকম ছোট-বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে প্রায় ২৩ হাজার। প্রাণ হারিয়েছেন ১৮৬ জন। জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াও অনেকে সারাজীবনের জন্য পঙ্গু হয়েছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো ফায়ার সার্ভিসের প্রতিবেদনে চলতি বছর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ও প্রাণহানি দুটোই ছিল গত বছরের চেয়ে অনেক বেশি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালে সারা দেশে মোট অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে ২২ হাজার ২৮৩টি। এতে প্রাণ গেছে ১৮৬ জনের। ২০১৮ সালে মোট অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ছিল ১৯ হাজার ৬৪২টি। প্রাণ যায় ১৩০ জনের। অর্থাৎ ২০১৮ সালের চেয়ে চলতি বছর ২৬৪১টি আগুনের ঘটনা এবং ৫৬ জনের মৃত্যু বেশি ছিল। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, মোট অগ্নিকাণ্ডের ৩৯ শতাংশের কারণ ছিল বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট বা ত্রুটি। দুর্ঘটনা থেকে রেহাই পায়নি বস্তি থেকে শুরু করে কেমিক্যাল গোডাউন বা আধুনিক বহুতল ভবনও। নিহতের পাশাপাশি আহত হয়েছে ৯০০-এর বেশি লোকজন। গত বছর যেটি ছিল ৬৬৪ জন। এবার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৫০০ কোটি টাকা। গত বছর আর্থিক ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৩৮৬ কোটি টাকা। বিগত পাঁচ বছরে এ ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা।

কর্মকর্তারা বলছেন, ২০১০ সালে পুরান ঢাকার নিমতলীর ভয়াবহতা পুরো দেশবাসীকে স্তম্ভিত করলেও সতর্ক করেনি। চলতি বছর ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে প্রমাণ হয় সে কথাই। পুরান ঢাকার চুড়িহাট্টায় কেমিক্যাল থেকে আগুন লাগে ওয়াহেদ ম্যানশনে। ১২ ঘণ্টার সে আগুন কেড়ে নেয় ৭৬টি তাজা প্রাণ। কয়েকটি মামলা হলেও ১০ মাসে কোনো অভিযোগপত্র জমা হয়নি। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও ফায়ার সার্ভিস এ আগুন থেকে শিক্ষা নিয়ে তৎপরতা দেখালেও স্থানীয়দের বাধার মুখে পুরান ঢাকা থেকে কেমিক্যাল কারখানা সরানো সম্ভব হচ্ছে না।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 60 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ