৩ বছরে প্রস্তাবিত ২৭ চুক্তির মাত্র ৬টি সই

Print

২০১৬ সালের অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে দুই দিনের সফরে ঢাকায় এসেছিলেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। সে সময় পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগ, কর্ণফুলী নদীর নিচে টানেল নির্মাণ, যোগাযোগ অবকাঠামো, তথ্য ও যোগাযোগ-প্রযুক্তিসহ নানা ধরনের উন্নয়ন কাজে ২৭টি প্রকল্পে ২ হাজার ৪শ’ কোটি মার্কিন ডলার ঋণের প্রতিশ্রুতি দেয় চীন।

তবে তিন বছরে সেই ২৭টি প্রকল্পের মাত্র ৬টির ঋণচুক্তি করা সম্ভব হয়েছে দেশটির সাথে। এতে প্রতিশ্রুত ঋণের মাত্র ৫ শতাংশ অর্থছাড় করেছে চীন।

অথচ সে সময়ের সমঝোতা অনুযায়ী, এসব প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা ২০২০ সালের মধ্যে। সে হিসাবে হাতে আছে মাত্র ১২ মাস। ফলে এই সময়ের মধ্যে চীনের প্রতিশ্রুত অর্থ পাওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করছেন সংশ্লিষ্টরা।

শি জিনপিংয়ের ঢাকা সফরে বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যকার সম্পর্কে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার ঘোষণা আসে। ২০১৭ সালকে বন্ধুত্বের বছর হিসেবে ঘোষণাও করেছিলেন শি জিনপিং। এরই অংশ হিসেবে তার সফরে ২ হাজার ৪০০ কোটি ডলার ঋণ প্রদানে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়।

এ বিষয়ে সরকারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, ‘গত তিন বছরের চেষ্টায় এখন পর্যন্ত চীনের সঙ্গে ৬টি ঋণচুক্তি করা সম্ভব হয়েছে। আর দেশটি এখন পর্যন্ত পাঁচটি প্রকল্পে এক বিলিয়ন (১০০ কোটি) মার্কিন ডলারের কিছু বেশি অর্থ ছাড় করেছে।’

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 57 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ