ওদের মুখে একটু হাসি ফোটানোর চেষ্টায় হ্যালো-পার্বতীপুরের সদস্যরা

Print

১লা জানুয়ারি। দিনটি বুধবার।ঘড়ির কাঁটা  ঠিক রাত দশটা আশ-পাশ। চারিদিকে নিস্তব্ধ।সাদা কুয়াশায় ঢেকে গেছে চারদিক। কনকনে ঠাণ্ডা চারপাশে।ঘটনাস্থলের পার্বতীপুরের গণকবরের আশপাশে ছোট্ট একটি বস্তিতে।শীত তাড়ানোর জন্য যে যার মতো করে চেষ্টা করছে।কেউ আগুন জ্বেলেছে।কেউ গুটিকয়েক টাছিড়া কাপড় গুটিয়ে নিয়েছে নিজেকে।কেউ আবার কাপড়ের জন্য তাকিয়ে আছে। বস্তির পাশে কোন এক কোণে ছিঁড়া একটি পাতলা চাদর গুটিসুটি মেরে শুয়ে আছে এক জীর্ণশীর্ণ বৃদ্ধা।তার শরীর কাপছিল শীতের তীব্রতায়।হঠাৎ করে উষ্ণতার ছোঁয়া। বৃদ্ধা চমকি উঠলেন। চোখ কচলিয়ে তাকিয়ে দেখেন একদল তরুণ। তাঁরাই গায়ে জড়িয়ে দিয়েছেন কম্বল। কৃতজ্ঞতায় বৃদ্ধার চোখ বেয়ে নেমে আসে পানি। হাত তুলে দোয়া করেন সেই তরুণদের।
এ ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হ্যালো-পার্বতীপুরের সদস্য ইমু। মধ্যরাতে অসহায় অনেক মানুষকে আচমকা আনন্দে ভাসিয়েছেন তাঁরা।

যখন সবাই ইংরেজি নববর্ষ শুভেচ্ছাদানে মাতোয়ারা। তখন তারা একটু তাদের এই ভিন্ন উদ্দেগ গ্রহন। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে শীতার্ত মানুষদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে তারা।নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী তাঁরা বাড়িয়ে দিয়েছেন সহযোগিতার হাত। অসহায় মানুষগুলোর মুখে হাসি ফোটাতে নিরন্তর ছুটে চলেছেন তাঁরা।

হ্যালো-পার্বতীপুর টিমের সদস্য সিরাজুল ইসলাম  ইমু মনে করেন, “আমরা “হ্যালো পার্বতীপুর” একটি পরিবার এর মতো।আর পার্বতীপুর এর মানুষকে আমরা নিজের পরিবার এর মতো ভালোবাসি। তাই আমরা চেষ্টাকরি বরাবরই অসহায় মানুষের পাশে দাড়াতে ও যথাসাধ্য তাদের সাহায্য করতে।”

তিনি আরও  বলেন, ‘অসহায় মানুষগুলোর পাশে আমাদেরকেই দাঁড়াতে হবে। আমরা এগিয়ে এলে অন্যরাও আসবে।’ গত ১লা জানুয়ারি তারা ১০০ জন অসহায় মানুষর হাতে তুলে দেয়শীতবস্ত্র। ফেসবুক ইভেন্ট, স্বেচ্ছাসেবকদের নিজস্ব  অর্থায়নে শীতবস্ত্র বিতরণ করে সংগঠনটি।

লেখাঃ আসমাউল মুত্তাকিন
শিক্ষার্থী
জার্নালিজম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ
মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 92 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ