নবাবগঞ্জে প্রবাসী শরীরে করোনা সনাক্তঃ১২ পরিবার হোম কোয়ারেন্টাইনে

Print
দোহার-নবাবগঞ্জ(ঢাকা) প্রতিনিধিঃ
ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় সৌদিআরব থেকে আসা ৪৭ বছর বয়সী এক প্রবাসীর শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন পাওয়া গেছে। আক্রান্ত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যদেরসহ আশপাশের ১২টি পরিবারকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছে উপজেলা প্রশাসন। ওই ব্যক্তি নবাবগঞ্জ উপজেলার বাহ্রা ইউনিয়নের মাইলাল এলাকার বাসিন্দা।
নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এইচ এম সালাউদ্দিন মনজু জানান, কয়েকদিন আগে সৌদিআরব থেকে নবাবগঞ্জের বাড়িতে ফিরেন ওই প্রবাসী। এরপর তার মধ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন হওয়ার বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দিলে তার শরাীর থেকে ও এই উপজেলার আরও তিনজনের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য সরকারের রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান(আইইডিসিআর)-এ পাঠানো হয়। মঙ্গলবার পরীক্ষার রির্পোটে ওই প্রবাসীর শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন পাওয়া যায়। বাকি তিনজনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন পাওয়া যায়নি। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে আইইডিসিআর থেকে একটি টিম নবাবগঞ্জে এসে সন্ধ্যায় তাকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গিয়ে ঢাকার উত্তরা কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে ভর্তি করে।
তিনি আরো বলেন, ওই প্রবাসী যেহেতু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে সেহেতু সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে তার বাড়ি এবং আশপাশের আরও ১২টি বাড়ির লোকজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। তাদের যেন কোনো অবস্থাতেই বাসা থেকে বের হতে না হয় সেজন্য প্রয়োজনীয় সব কিছু উপজেলা প্রশাসন সরবরাহ করবে। এ সময়ে অযথা বাইরে চলাফেরা না করে সবাইকে ঘরে থাকার আহŸান জানান।
নবাবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শহীদুল ইসলাম বলেন, ঢাকা থেকে যে টিমটি এসে ছিল তারা তথ্য পেয়েছেন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ওই ব্যক্তি যাদের সাথে উঠা-বসা কিম্বা চলাফেরা করেছেন এ রকম ৪৮ জনের একটি তালিকা তারা প্রস্তুত করেছেন প্রয়োজনে তাদের শরীর থেকে রক্ত সংগ্রহ করে নমুনা পরীক্ষা করবেন।
নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মোস্তফা কামাল বলেন, ওই বাড়িগুলোতে হোম কোয়ারেন্টাইনের ব্যানার ও লাল নিশানা টানিয়ে দেওয়া হয়েছে। কেউ নিয়ম না মানলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
দোহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বলেন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে পুলিশ প্রশাসন মাঠে কাজ করেছে। নবাবগঞ্জে একজন করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় দোহারবাসীকে আরো সর্তক হতে হবে। বিনা প্রয়োজনে বাহিরে বের না হয়ে বাড়িতে অবস্থান করুন।
দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার রিবা বলেন, যেহেতু দোহার নবাবগঞ্জ দুটি উপজেলার দূরত্ব অত্যান্ত কাছাকাছি এলাকায় সেহেতু দোহারবাসীকে অত্যান্ত সাবধানে থাকতে বলছি। ইতোমধ্যে বিশেষ সর্তকতা জারি করা হয়েছে। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে কেউ বাহিরে বের হবেন না। সবাই ঘরে অবস্থান করে স¦াস্থ্যবিধি মেনে চলুন।
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 86 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ