মোবাইলে খাদ্যাভাবের কথা জানালে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে যাবে: ইউএনও

Print

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি শেরপুরের নকলায় খেটে খাওয়া কর্মহীন অসচ্ছল ও দরিদ্রদের সহায়তার জন্য গঠন করা হয়েছে উপজেলা ত্রান সহায়তা সেল। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকারের নির্দেশে ঘরের বাহিরে বের না হওয়া খেটে খাওয়া কর্মহীন অসচ্ছল দরিদ্র পরিবারের লোকজন এ ত্রান সহায়তা সেলের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন বলে জানা গেছে।

উপজেলার খেটে খাওয়া কর্মহীন অসচ্ছল দরিদ্র পরিবারের যে কেউ মোবাইল (০১৯১১-৫৫ ১০ ১১) নম্বরে যোগাযোগ করে খাদ্যাভাবের কথা জানালে তাদের ঘরে দ্রুত সময়ের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে যাবে। এমন আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জাহিদুর রহমান। ইউএনও মহোদয় উপজেলাবাসীকে এ আশ্বাস দিয়ে সর্ববৃহৎ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকের নিজ টাইম লাইনে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

করোন ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে উপজেলার খেটে খাওয়া কর্মহীন অসচ্ছল ও দরিদ্রদের সহায়তার জন্য নকলা বাজার চাল ব্যবসায়ী সমিতি, গো-খাদ্য ব্যবসায়ী, লবন ব্যবসায়ী, অফিসার্স কাব, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমিতি, ওয়াল্টন শো রুম, সার ডিলার সমিতি, দেশ ফিলিং স্টেশন, তেল মিল মালিক সমিতি, চাল কল মালিক সমিতি এরইমধ্যে উপজেলা ত্রান সহায়তা সেলে খাদ্য সামগ্রী জমা করেছেন।

তারমধ্যে শনিবার বিকেলে নকলা বাজার চাল ব্যবসায়ী সমিতি ১০০ প্যাকেট, গো-খাদ্য ব্যবসায়ীরা ৯০ প্যাকেট, লবন ব্যবসায়ীরা ৩০ প্যাকেট খাদ্য সামগ্রী উপজেলা ত্রান সহায়তা সেলে জমা করেছেন। এসময় নকলা বাজার চাল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শহিদুল ইসলাম, গো-খাদ্য ব্যবসায়ী আলহাজ্ব নেতার আলীসহ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অনেকে উপস্থিত ছিলেন। এসব খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুর রহমান বুঝে নিয়েছেন। তাদের দেওয়া এ ২২০ টি প্যাকেটের প্রতিটিতে ৫ কেজি চাল, ২ কেজি গোল আলু, আধা কেজি করে ডাল ও পিয়াঁজ, আধা লিটার সয়াবিন তেল ও একটি করে সাবান দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া অন্যান্য সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান গুলো তাদের নিজ নিজ অর্থনৈতিক সামর্থের মধ্যে বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী ও উপকরণ উপজেলা ত্রান সহায়তা সেলে জমা করেছন।

দেশের এমন ক্রান্তি লগ্নে অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর জন্য উপজেলা ত্রান সহায়তা সেলে যে বা যারা সহায়তা জমা করেছেন তাদের সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুর রহমান। তাঁরা স্ট্যাটাসের মাধ্যমে উপজেলার সকল বিত্তশালীদের সহায়তার হাত নিয়ে এগিয়ে আসতে আহবান জানান তিনি। তিনি আরেক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে উপজেলায় খেটে খাওয়া কর্মহীন অসচ্ছল দরিদ্র কর্মহীন কোন পরিবারে (যারা পূর্বে সহায়তা পায়নি) তাদের খাদ্যাভাব থাকলে ০১৯১১-৫৫ ১০ ১১ এই মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করতে বলেন। এতেকরে দ্রুত সময়ের মধ্যে খাদ্যাভাবে থাকা পরিবারের ঘরে খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে। যে সকল ব্যক্তি, সংগঠন বা সংস্থা বিভিন্ন ভাবে ও বিচ্ছিন্ন ভাবে দরিদ্র অসচ্ছল কর্মহীনদের মাঝে ত্রান বিতরণ করছেন, তাদের প্রতি ধন্যবাদের সহিত কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি অন্য এক স্ট্যাটাসে বলেন ‘ত্রান সহায়তা বিতরণের পূর্বে উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করুন এবং বিতরণকৃতদের তালিকা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট প্রেরণ করুন।’ তবে দ্বৈততা পরিহারের জন্য পৌর মেয়র অথবা সংশ্লিষ্ট ইউ.পি চেয়ারম্যানদের সাথে পরামর্শ করে বা তাদের নিকট থেকে তালিকা সংগ্রহ করে অসহায়দের সহযোগিতা করতে আহবান জানান তিনি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 78 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ