করোনা হলে কী খাবেন – এই বিষয়ে ৩টি পরামর্শ।

Print

(যাদের করোনা লক্ষণ দেখা দিয়েছে, তাদের জন্যেও এই লেখাটা কাজে আসবে।)

১। সুষম খাবার

প্রথমেই বলে রাখি, কোন নির্ভরযোগ্য গবেষণাতে এমন তিনটি, পাঁচটি, বা দশটি খাবার পাওয়া যায়নি যা খেলে আপনি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠবেন। এমনও কোন খাবার পাওয়া যায়নি, যেটা না খেলে আপনার করোনা সারবে না।

প্রতি দিন ২ কাপ ফল, ২.৫ কাপ সবজি, ১৮০ গ্রাম শস্যদানা, ১৬০ গ্রাম মাংস অথবা ডাল বা শিম জাতীয় খাবার খেলে সেটাকে সুষম খাবার বলছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। অনেক সময় এত সুনির্দিষ্ট পরামর্শ দেখলে আমরা ভয় পেয়ে যাই। বলি যে এত মেপে মেপে খাওয়া সম্ভব না। এক্ষেত্রে একটা জিনিস মনে রাখা ভালো – আপনি যদি এই পরামর্শ শতভাগ মানতে নাও পারেন, যত কাছাকাছি যাবেন ততই আপনার জন্য ভালো।

কোন খাবার গুলো পরিহার করবেন?
তেল-চর্বি-চিনি যুক্ত খাবার, প্রক্রিয়াজাত খাবার, আর ধূমপান এড়িয়ে চলতে হবে।

সবজি রান্নার ক্ষেত্রে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে প্রয়োজনের অতিরিক্ত তাপে বা দীর্ঘ সময় রান্না না করা। তাতে ভিটামিন কমে যেতে পারে।

২। ভিটামিন ডি

ভিটামিন ডি তৈরি করতে শরীরের সূর্যের আলো প্রয়োজন। ঘরের ভেতর বহু দিন আটকে থাকায় অনেকে সূর্যের আলো পাচ্ছেন না। সেক্ষেত্রে ভিটামিন ডি এর ঘাটতি দেখা দিতে পারে। তাই ভিটামিন ডি আলাদা করে খেতে পারেন। NHS পরামর্শ দেয় ১০ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন ডি খেতে। আপনার ডাক্তার এর থেকে বেশী ও খেতে পরামর্শ দিতে পারে। তবে নিজে নিজে ডোজ বাড়িয়ে খাবেন না। তাতে মারাত্মক পরিণাম হতে পারে।

ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার গুলো হল তৈলাক্ত মাছ যেমন কড, স্যামন ও টুনা, গরুর মাংস, যকৃত (বা কলিজা), ডিমের কুসুম, ভিটামিন ডি ফরটিফাইড cereal ইত্যাদি। তবে আমাদের যতটুকু ভিটামিন ডি প্রয়োজন, তার সবটুকু খাবার থেকে নেয়া প্রায় অসম্ভব। আমরা সাধারণত যখন বাইরে যাওয়া আসা করি, শরীর সূর্যের আলো থেকে ভিটামিন ডি তৈরি করে নেয়। তাই সেলফ আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় অন্যকে ঝুঁকিতে না ফেলে যদি সম্ভব হয়, সূর্যের আলোয় থাকতে পারলে ভালো হবে।

আবারো বলি, ভিটামিন ডি করোনা সারাবে এজন্য এই পরামর্শ না। আপনার শরীরে ঘাটতি থাকতে পারে, সেটা পূরণের জন্য এই পরামর্শ।

৩। পানি

দিনে ৮ থেকে ১০ কাপ পানি পান করতে হবে। আপনি যথেষ্ট পরিমাণ পানি পান করছেন কি না, সেটা বোঝার একটা উপায় হল প্রস্রাবের রং দেখা। প্রস্রাবের রং গাড় হলুদ মানে আপনি পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করছেন না। যদি বমি বা ডায়রিয়া হয়, সেই ক্ষেত্রে স্যালাইন খেতে হবে। বমি বা ডায়রিয়া থাকলে আরো অনেক সচেতন ভাবে পানি শূন্যতা এড়িয়ে চলতে হবে।

 

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 146 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ